৫ টি সোশ্যাল মিডিয়া ট্রিক্স যেভাবে আনলিমিটেড ক্লায়েন্ট পাওয়া যাবে

৫ টি সোশ্যাল মিডিয়া ট্রিক্স যেভাবে আনলিমিটেড ক্লায়েন্ট পাওয়া যাবে

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ৩ বিলিয়নের বেশি লোক রয়েছে। তাই সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ক্লায়েন্ট খুঁজে পাওয়ার একটি গুরুত্বপূর্ণ মাধ্যম।

এক আর্টিকেলে সব ট্রিক্স নিয়ে বলা সম্ভব নয়, তাই এই আর্টিকেলে ৫ টি সোশ্যাল মিডিয়া ট্রিক্স নিয়ে আলোচনা করব।

এই ট্রিক্স গুলোর সাহায্যে বছরের পর বছর দ্বিগুণ হারে আমরা কাজ এবং ক্লায়েন্ট পাচ্ছি।

১) ফেসবুক গ্রুপ মার্কেটিং

ফেসবুক ঘনঘন তাদের এলগরিদম পরিবর্তন করলেও দিন দিন ফেসবুকের ব্যস্ততা বাড়ছে। ফেসবুকের মতে, প্ল্যাটফর্মটি গ্রুপের কন্টেন্টকে অগ্রাধিকার দেয় যে কন্টেন্ট নিয়ে ব্যবরহারকারীরা প্রায়ই ব্যস্ত থাকেন।তাই আপনি যদি নিজের গ্রুপে ধারাবাহিকভাবে কন্টেন্ট পাবলিশ করেন এবং দর্শক শ্রোতারা কন্টেন্টে প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করলে বা তাড়া নিজেরা কোন কন্টেন্ট পোস্ট করেন, তাহলে এলগরিদম যা চাচ্ছে আপনি তাই তাকে দিচ্ছেন। আপনি নিজেই নিজের ফেসবুক নিউজ ফিডে স্ক্রল করে দেখতে পারেন, কোন গ্রুপ পোস্ট সামনে আসতে  খুব বেশি সময় লাগে না।

যদি কেউ আপনার গ্রুপে যুক্ত হয় , তারা আপনার কাছ থেকে শুনতে চায় । তারা আপনার কন্টেন্টে আগ্রহী। আপনার ফেসবুক কমিউনিটিতে যারা যুক্ত হন , তারা আপনার সর্বাধিক অনুগত ক্লায়েন্ট। ফেসবুক গ্রুপগুলি ক্লায়েন্টের সাথে আপনাকে আরো বেশি ব্যাক্তিগত ভাবে সংযুক্ত করে দেয়।

গ্রুপে আপনি আপনার নিয়ম এবং প্রত্যাশা পরিষ্কার ভাবে উল্লেখ্য করুন। প্রতিদিনের আলোচনাকে অগ্রাধিকার দিন। আপনার গ্রুপকে জানতে দিন আপনি তাদের শুনছেন তবে বেশি কথা বলবেন না। সরাসরি বিক্রয় অথবা লিংক ড্রপিং থেকে বিরত থাকুন। আপনার ফেসবুক গ্রুপ এবং কন্টেন্ট ওপটিমাইজ করুন।

২) ইনস্ট্রাগ্রাম মার্কে্টিং

অনেক ব্র্যান্ডের সামাজিক উপস্থিতি, লাভজনক ট্রাফিক চালনা, ক্রমবর্ধমান রুপান্তর এবং শ্রোতাদের দৃষ্টি আকর্ষণ করতে মুল কেন্দ্র বিন্দুতে পরিণত হয়েছে ইনস্ট্রাগ্রাম। ইনস্ট্রাগ্রামে মার্কেটিং করে ক্লায়েন্ট পেতে অবশ্যই Business account ব্যবহার করতে হবে। আপনার শ্রোতা যত বেশি হবে আপনার ক্লায়েন্টের সাথে যুক্ত সুযোগ তত বেশি। আপনার ইনস্ট্রাগ্রামে শ্রোতার সংখা  যতই হোক না কেন যদি তারা আপনার প্রতিনিধিত্ব না করে ক্রয় না করে তাতে কোন লাভ হবে না।

প্ল্যাটফর্মে আপনার ইনস্টাগ্রাম বিপণনের লক্ষ্য এবং উদ্দেশ্য নির্ধারণ করুন। আপনার ইনস্ট্রাগ্রাম আইডি ওপ্টিমাইজ করুন। ক্লায়েন্টের সাথে সংযুক্ত হহবে সাহায্য করবে আপনার শ্রোতা বা অনুসরণকারীরা। বায়ো, ছবি, ক্যাপশন এবং একটি যথাযথ নাম বা ছবি ছাড়া কীভাবে আপনাকে লোকে চিনবে আপনার সম্পর্কে জানবে।ইনস্টাগ্রামে এমন সামগ্রী তৈরি করুন যা আপনার ক্লায়েন্টরা পছন্দ করবে। নিয়মিত পোস্ট করার একটি সময়সূচি রাখুন। সাধারণত স্প্যাম এড়াতে দিনে কয়েক বারের বেশি পোস্ট করা উচিত নয়। তবে আপনার ক্যাডেন্স যাই হোক না কেন , এটি ধারাবাহিক রাখুন।প্রায় ২০০ মিলিয়ন ব্যবহারকারী প্রতিদিন ইন্সস্ট্রাগ্রামে লগইন করেন, তাই আপনার ক্লায়েন্টের কাছ পর্যন্ত পৌছতে পুরো দিন জুড়ে কয়েকবার পোস্ট করার চেষ্টা করুন।ব্যবহারকারীদের বেশি কন্টেন্ট দেখাতে ইনস্ট্রাগ্রামের এলগরিদম পরিবর্তন করেছে। সঠিক সময়ে পোস্ট আপনাকে বেশি দৃশ্যমান করবে। ভূয়া ব্যবহারকারী এবং বৈধ অনুসরণকারীর মধ্যে বিশাল পার্থক্য রয়েছে। অনুসরণকারী কেনা লোভনীয় মনে হতে পারে তবে তা বৈধ অনুসরণকারী বৃদ্ধি হয় না।সর্বত্র আপনার ইনস্ট্রাগ্রাম প্রদর্শন করুন।

আপনার প্রোফাইলকে অপটিমাইজ করে নেওয়া থেকে শুরু করে আপনার অনুসারীদের যুক্ত করা এবং তার বাইরেও, গ্রাহকদের সাথে ক্লিকগুলি জেনে রাখা ধারাবাহিকতা এবং পরীক্ষার বিষয়।

৩) লিঙ্কডিন মার্কেটিং

৬৬০ মিলিয়নের বেশি নিবন্ধিত পেশাদার ব্যাক্তির সাথে এবং B2B  মার্কেটারদের কাছে প্রবেশের জন্য বৃহত্তম সংস্থা হলো লিংকডইন।তাই এই প্ল্যাটফর্মটি ক্লায়েন্ট খুঁজে পাবার সম্ভাবনা অনেক বাড়িয়ে দেয়। সঠিক লিংকডইন মার্কেটিং কৌশল আপনার ব্যক্তিগত ব্র্যান্ড এবং নতুন ক্লায়েন্ট খুঁজে পেতে বিস্ময়কর কাজ করতে পারে।যদিও আপনি যথাযথভাবে আপনার লিংকডইন মার্কেটিং কৌশল একেবারে তৈরি করতে পারেন, তবে ট্রিক্সটি আপনার প্রচারে অনুপ্রেরণা হিসাবে কাজ করবে।

প্রোফাইল অপটিমাইজ করা প্রাথমিক পদক্ষেপের মধ্যে একটি। ক্লায়েন্টের নজরে আসার জন্য আপনার প্রোফাইল উন্নতি করতে হবে। আপনার একটি উচ্চ মানের হেডশট প্রোফাইল ছবি দিয়ে শুরু করুন। আপনার প্রোফাইলের একটি ছবি আপনাকে ২১ বার বেশি প্রোফাইল ভিউ দেয়। এমন কন্টেন্ট প্রকাশ করুন যা আপনার ভ্যালু যুক্ত করে। আপনার ক্লায়েন্ট বা শ্রোতার বৈশিষ্ট্য মিলিয়ে বিজ্ঞাপন প্রচার করুন। আরো বড় প্রভাব তৈরি করতে সম্মৃদ্ধ মিডিয়া ব্যবহার করুন।বিশ্লেষণ মুলক ডাটা দিয়ে আপনার প্রচেষ্টা চালিয়ে যান।

৪) ইউটিউব মার্কেটিং

আপনি যদি সোশ্যাল মিডিয়ার আপনার মার্কেটিং কৌশলটি বাড়িয়ে নিত চান এবং ক্লায়েন্টের সন্ধান পেতে চান তবে তার জন্য সেরা প্ল্যানফর্মটি হচ্ছে ইউটিউব। মাসে ইউটিউবে ২ বিলিয়নের বেশি ব্যবহারকারি রয়েছে, এটি পৃথিবীর ২য় জনপ্রিয় ওয়েবসাইট এবং সার্চ ইঞ্জিন, ৫৫% মার্কেটার ইউটিউব ব্যবহার করেন, প্রতিদিন ১ বিলিয়ন ঘন্টার বেশি ভিডিও কন্টেন্ট ইউটিউবে দেখে মানুষ, ১০০ দেশে ও ৮০ টি ভাষা রয়েছে ইউটিউবে তাই ক্লায়েন্ট খুঁজে পাবার সবচেয়ে বড় প্ল্যাটফর্ম ইউটিউব।

ইউটিউব চ্যানেল তৈরি করুন এবং ব্র্যান্ড করুন। আপনার প্রত্যাশিত দর্শক বা ক্লায়েন্টদের বোজার চেষ্টা করুন, ইউটিউবে মার্কেটিং হচ্ছে মুলত কন্টেন্ট তৈরি করা এবং আপনার প্রত্যাশিত দর্শকের কাছে পৌঁছানো। তাই আপনাকে জানতে হবে আপনার প্রত্যাশিত দর্শক কি পছন্দ করে, আপনার কাছ থেকে তারা কোন ধরণের কন্টেন্ট প্রত্যাশা করে, তারা কখন ইউটিউবে থাকেন , কতদিন পর পর তারা নতুন ভিডিও চায় ইত্যাদি। আপনার প্রতিযোগীদের দেখুন তাদের কৌশল থেকে শিখুন, তাদের বেশি জনপ্রিয় এবং ক জনপ্রিয় ভিডিও দেখলেই বুঝতে পারবেন আপনি কি কি ঠিক করছেন এবং কি ভুল করছেন। আপনার ভিডিওটি যাতে আপনার কাঙ্ক্ষিত দর্শকদের কাছে পৌছায় তার জন্য অপটিমাইজ করাও সমান গুরুত্বপূর্ণ। লোকেরা প্রাসঙ্গিক অনুসন্ধান ফলাফলগুলিতে এটি না পেলে আপনার ভিডিওগুলি কতটা বিনোদনমূলক তা বিবেচ্য নয়। ঠিক এই কারণেই আপনার নিজের সময় এবং প্রচেষ্টাটি ইউটিউব SEO তে বিনিয়োগ করতে হবে। নজরকারা থাম্বনিল বানান।ধারাবাহিকতা ইউটিউব মার্কেটিং এর সাফল্যের মূল চাবিকাঠি। মানসম্পন্ন কন্টেন্ট তৈরি এবং সম্পাদনা করতে সময় লাগে, সুতরাং আপনি প্রতিদিন কোনও ভিডিও প্রকাশ করতে পারবেন না। তবে আপনার পোস্ট করার সময়সূচি তৈরি করে নিন।এটি আপনার দর্শকদের ধারণা দিবে কখন আপনার কন্টেন্ট প্রত্যাশা করা উচিত এবং তাদের আরও কার্যকরভাবে যুক্ত করতে আপনাকে সহায়তা করবে।একাধিক ভাষায় ক্যাপশন এবং সাবটাইটেল দিয়ে দিন।ইউটিউব বিজ্ঞাপনে বিনিয়োগ করুন।

মনে রাখবেন যে আপনার প্রচেষ্টা নিখুঁত করার জন্য  আপনার একক উদ্যোগের পরিবর্তে আপনার সামগ্রিক মার্কেটিং কৌশলটির অংশ হিসাবে ইউটিউব মার্কেটিং বিবেচনা করা উচিত।

৫) পিন্টারেস্ট মার্কেটিং

যদিও পিন্টারেস্ট মূলত রেসিপি এবং বাড়ির সাজসজ্জার ধারনা সন্ধানের জন্য পরিচিত ছিল, তবে এতে আরো অনেক কিছু রয়েছে। প্রকৃতপক্ষে পিন্টারেস্ট ভিজ্যুয়াল অনুসন্ধান ইঞ্জিন, আপনি যে কোন কিছুর সন্ধান করতে পারেন তার জন্য হাউজিং এর অনেক ছবি, গ্রাফিক্স এবং অনুপ্রেরণা হিসেবে একটি নাম তৈরি করেছে। এর অর্থ এটি ফটোগ্রাফি বা মূল গ্রাফিক্স হোক না কেন , তাদের ব্যবসার ভিজ্যুয়াল দিকযুক্ত ব্যবসার জন্য এটি একটি স্বর্ণখনির সোশ্যাল মিডিয়া প্ল্যাটফর্ম। ৫৫% ব্যবহারকারী বিশেষত নতুন পণ্য গুলি খুজতে প্ল্যাটফর্মে থাকে।

আপনার প্রোফাইল ব্র্যান্ড করুন, কভার বোর্ড পছন্দ করুন, ৫ টি প্রদর্শনী বোর্ড বাছাই করুন,প্রোফাইলে ছবি আপলোড করুন, বায়ো লিখুন, আপনার ওয়াবসাইট ভ্যারিফাই করুন। আপনার কন্টেন্ট কৌশল নির্ধারণ করুন। কমিউনিটি বোর্ডগুলিতে যোগদান করুন।পিন্টারেস্ট SEO তে লক্ষ্য রাখুন।ফ্রেশ পিনগুলি নির্ধারণ করুন।

একটি কার্যকর সোশ্যাল মিডিয়া মার্কেটিং কৌশল/ ট্রিক্স আপনার সামগ্রিক মার্কেটিং পরিকল্পনার একটি অপরিহার্য অংশ যা আপনার প্রচারকে উন্নত করতে দেয়।

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Scroll to Top